টালমাটাল পিএসজি শিবির

গত ২৩ তারিখ প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে ক্লাবের বড় দুই তারকাকে সামলানো নিয়ে করা রসিকতাও পক্ষে যায়নি টুখেলের।ফুটবলে সাধারণত ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়ার দু-এক দিনের মধ্যেই সেটা জানিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু জার্মান কোচের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানাতে বেশ সময় নিচ্ছে পিএসজি। কোচ ও তাঁর আইনজীবীদের ২৩ তারিখে জানিয়ে দেওয়া হলেও আনুষ্ঠানিকভাবে ক্লাব এখনো এ ব্যাপারে কিছু জানায়নি। কিন্তু টুখেলকে যে আর প্যারিসের ডাগআউটে দেখা যাবে না, সেটা নিশ্চিত করেছে জার্মান পত্রিকা বিল্ড।

গতকাল টুইটে রোমানো লিখেছেন, ‘ক্লাব ছাড়ার ব্যাপারে পিএসজির সঙ্গে ঐকমত্যে পৌঁছেছেন টমাস টুখেল। এর ফলে ৬০ লাখ ইউরো খরচ হচ্ছে নাসের আল খেলাইফির। পিএসজির ম্যানেজার হওয়ার ব্যাপারে এর মধ্যেই সম্মতি দিয়েছেন মরিসিও পচেত্তিনো। চুক্তির সব খুঁটিনাটি সম্পন্ন। স্বাক্ষরও হয়ে গেছে।’ এ ব্যাপারে যেন কারও সন্দেহ না থাকে, সেটা নিশ্চিত করেছেন নিজের বিখ্যাত ক্যাচফ্রেস দিয়ে, ‘শুরু হলো!’

পচেত্তিনো নাকি এরই মধ্যে পিএসজিতে নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাবতে শুরু করেছেন। কদিন আগেই নেইমার বলেছিলেন, আগামী মৌসুমেই মেসির সঙ্গে খেলতে চান। এত দিন এমন কথায় নেইমারকে সবাই বার্সেলোনার জার্সিতে দেখার কথা ভাবতেন। কিন্তু বার্সেলোনার বর্তমান অবস্থায় মেসির গায়েই সবাই এখন পিএসজির জার্সি দেখতে পাচ্ছেন। পচেত্তিনোও নেইমারের সেই স্বপ্ন পূরণ করায় আগ্রহী। মেসিকে কোচিং করানো যে তাঁর স্বপ্ন, এটা তো বহু আগ থেকে জানা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.