কান্না জড়ানো চোখে মৃত মেয়ের উপহার নিলেন বাবা 

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার দমদমিয়া আলোর পাঠশালার শিক্ষার্থী ছিল পারভিন আক্তার। দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। ২৫ এপ্রিল প্যারালাইসিসে আক্রান্ত হয়ে মারা যায় সে। ঈদ উপলক্ষে পাঠশালার শিক্ষার্থীদের ঈদ উপহার দেওয়া হয়। মেয়ের নামে বরাদ্দ উপহার নিতে এসেছিলেন বাবা এনায়েত উল্লাহ। উপহারসামগ্রীর প্যাকেটটি হাতে নিতেই তাঁর দুই চোখ পানিতে টলটল করে ওঠে, ভেঙে পড়েন কান্নায়।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের দমদমিয়া বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আলোর পাঠশালা মাঠে এই ঈদ উপহারসামগ্রী বিতরণ করা হয়। উপহার সামগ্রীর প্যাকেটে ছিল পোলাওয়ের চাল, মুরগি, চিনি, আলু, সেমাই, দুধ, পেঁয়াজ, সয়াবিন তেল, মাংসের মসলা, সাবান ও মাস্ক।বিদ্যালয়টির ১৯৯ জন শিক্ষার্থী ও ৫ জন শিক্ষক-কর্মচারী এই উপহার পান।

বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি ফরিদুল আলম ঈদের আগে শিক্ষার্থীদের উপহারসামগ্রী বিতরণের উদ্যোগকে স্বাগত জানান। তিনি বলেন, করোনাকালে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের মধ্যে ঈদ উপহারসামগ্রী তুলে দিয়ে প্রথম আলো ট্রাস্ট শিক্ষাদানের পাশাপাশি মানুষের পাশে দাঁড়ানোর দৃষ্টান্ত দেখাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *