পশ্চিমবঙ্গে ধেয়ে আসছে ইয়াস

পশ্চিমবঙ্গের দিঘা, মন্দারমণি, বকখালি, তাজপুর এলাকায় মাইকে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। সমুদ্রতীরের বাসিন্দাদের বিশেষ করে নিম্নাঞ্চলে বসবাসকারী মানুষকে ইতিমধ্যে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ইয়াস আঘাত হানার আগে যেন তারা নিরাপদ স্থান বা সাইক্লোন সেন্টারে আশ্রয় নেয়। ঘূর্ণিঝড় ইয়াস অভিমুখ পরিবর্তন করে এবার পশ্চিমবঙ্গের দিকে ধেয়ে আসছে। আঘাত হানতে পারে ভারতের আরেকটি সমুদ্র উপকূলবর্তী রাজ্য ওডিশায়।

শনিবারই বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে। আজ রোববার তা গভীর নিম্নচাপে পরিণত হচ্ছে। কাল সোমবার সেই নিম্নচাপ তৈরি হবে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসে। ইয়াসের প্রভাবে কাল সন্ধ্যা থেকেই ওডিশা ও পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে। এর সর্বোচ্চ গতিবেগ হতে পারে ঘণ্টায় ৬০ কিলোমিটার। আর আগামী মঙ্গলবার সমুদ্র উপকূলবর্তী জেলাগুলোতে প্রথমে হালকা ও মাঝারি এবং পরে ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

সন্ধ্যায় উপকূলীয় এলাকায় ঘণ্টায় ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে। সর্বোচ্চ গতিবেগ হতে পারে ৭০ কিলোমিটার। বুধবার শুরু হতে পারে প্রবল বৃষ্টিপাত। সেদিন ঝড়ের গতিবেগ হতে পারে ৯০ থেকে ১০০ কিলোমিটার।

রাজ্য সরকারও ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় পর্যাপ্ত পরিমাণ খাদ্য মজুত রেখেছে। ঘূর্ণিঝড়ে ভেঙে যাওয়া গাছপালা যাতে দ্রুত কেটে সরিয়ে ফেলা যায়, সে জন্য বিশেষ টিম তৈরি করা হয়েছে। অন্যদিকে কলকাতাসহ রাজ্যের বিদ্যুৎ বিতরণ কর্তৃপক্ষ এই ঝড় মোকাবিলায় পর্যাপ্ত ব্যবস্থাও গ্রহণ করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.