ব্যাঙের বিয়ে!!!

করোনাভাইরাস মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে যখন ভারত বিপর্যস্ত, তখন বৃষ্টিহীনতায় অনেকের পেটে টান পড়েছে। ব্যতিক্রম নন ত্রিপুরার চা শ্রমিকরা। চা চাষের জন্য যে অনেক পানি দরকার তা বলার অপেক্ষা রাখে না। আর সেই কারণেই এবার দেবতাদের রাজা ইন্দ্রকে সন্তুষ্ট করতে ব্যাঙের বিয়ের আয়োজন করলেন পশ্চিম ত্রিপুরার আদিবাসী চা শ্রমিকরা।ভারতের বিভিন্ন প্রান্তের অধিবাসীরা রূপকথার নিছক গল্পের মতো অনেক ঘটনাকেই প্রথা হিসেবে মর্যাদা দিয়ে আসছেন। সম্প্রতি ত্রিপুরার এমন একটি ঘটনা আলোড়ন পরেছে পুরো দুনিয়ায়।

ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওতে দেখা গেছে, গ্রামের নারীরা জড়ো হয়েছেন একটি জায়গায়। সেখানে এক নারী ধরে রেখেছেন পাত্রকে, অন্য নারীর হাতে রয়েছে পাত্রী। নতুন জামাই সেজে স্ত্রীর গলায় মালা পরাতে প্রস্তুত ব্যাঙবাবুও। যদিও মালা পরাতে সাহায্য করলেন নারীরাই।

আয়োজন সব কিছুই ছিল মানুষের বিয়ের মতো। নদীতে স্নান করানো থেকে গায়ে হলুদ, নতুন জামা ও শাড়ি পরানো থেকে মালাবদল, সিঁদুর দান-সবই রয়েছে অনুষ্ঠানে। পার্থক্য কেবল একটাই এখানে পাত্র-পাত্রী মানুষ নয় ব্যাঙ।

গ্রামের বাসিন্দারা জানান, দীর্ঘকাল ধরেই এই প্রথা অনুসরণ করে আসছেন তারা। চাষের জন্য প্রয়োজনীয় বৃষ্টিপাত না হলে ইন্দ্র দেবতাকে সন্তুষ্ট করতে ব্যাঙের বিয়ে দেওয়া হয়। আশীর্বাদস্বরূপ বৃষ্টিপাত ঘটান ইন্দ্রদেব।গত বছরেও কর্নাটকের উডুপিতে বৃষ্টির জন্য মে মাসে বিয়ে দেওয়া হয়েছিল দুটি ব্যাঙের। যদিও সে সংসার বেশিদিন স্থায়ী হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.