সেতুমন্ত্রীর ভাইয়ের  আচরণবিধি লঙ্ঘন

রোগী আনা-নেওয়ার কাজে ব্যবহার হয় অ্যাম্বুলেন্স কিন্তু সেই অ্যাম্বুলেন্সকে ব্যবহার করা হয়েছে নির্বাচনী প্রচারে। অ্যাম্বুলেন্সের বহর ব্যানার লাগিয়ে, সাইরেন বাজিয়ে আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট শহরে মহড়া দিয়েছে।

আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আবদুল কাদের মির্জার পক্ষে এই মহড়া হয়েছে। কাদের মির্জা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই।

সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সৈয়দ আনোয়ার খালেদ  বলেন, “নির্বাচনী আচরণবিধিতে কোনো ধরনের যানবাহন ব্যবহার করে শো-ডাউন করার সুযোগ নেই। বিষয়টি হয়তো নির্বাচনী কাজে নিয়োজিত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নজরে পড়েনি বলে উল্লেখ করেন এই কর্মকর্তা।“

আবদুল কাদের মির্জা  বলেন,” অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে প্রচারণা চালানোর বিষয়টি সম্পর্কে তিনি জানতেন না। যাঁরা করেছেন, তাঁরা তাঁকে না জানিয়েই করেছেন। তিনি খোঁজ নিয়ে তাঁদের নিষেধ করে দেবেন, যাতে এ ধরনের কোনো প্রচারণা চালানো না হয়।“

হঠাৎ একসঙ্গে অনেকগুলো অ্যাম্বুলেন্সের সাইরেনের শব্দ শুনে লোকজন খানিকটা থমকে দাঁড়ান। পরে অ্যাম্বুলেন্সের বহর দৃষ্টির কাছাকাছি এলে ভুল ভাঙে। অ্যাম্বুলেন্সগুলো সাইরেন বাজিয়ে ও নৌকার পক্ষে মিছিল নিয়ে পৌর শহরের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে বেড়ায়। ‘সত্যবচনে’ আলোচিত হওয়া একজন প্রার্থীর পক্ষে এভাবে আচরণবিধি ভঙ্গ করে লাগাতার সাইরেন বাজিয়ে অ্যাম্বুলেন্সের মহড়া নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য করতে দেখা গেছে কাউকে কাউকে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *