ভিসির বাসভবনে তালা

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও এক ব্যক্তিকে চাকরি দেওয়ার কথা উঠে এসেছে, অভিযোগ ছিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ভিসির বিরুদ্ধে। এর প্রতিবাদে ভিসির বাসভবনে (ভিসি লাউঞ্জ) তালা দিয়েছেন রাবি ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের চাকরি না দিয়ে ভিসি অন্যদের চাকরি দিচ্ছেন- এমন অভিযোগ করেই তালা দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

রাবি ছাত্রলীগের ক্ষুব্ধ প্রায় ৫০ নেতাকর্মী সোমবার রাত সোয়া ৯টার দিকে ভিসির বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন। এর পর তারা ভিসির বাসভবনের প্রধান ফটকে তালা দেন। এ সময় ভিসি প্রফেসর ড. আব্দুস সোবহানের পদত্যাগও দাবি করেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, রাত ১১টার দিকেও ভিসি লাউঞ্জের সামনে অবস্থান করছিলেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

এ বিষয়ে রাবি ছাত্রলীগ সভাপতি গোলাম কিবরিয়া জানিয়েছেন, ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের চাকরি না দিয়ে নিজের লোকদের চাকরি দিচ্ছেন ভিসি। কিন্তু চাকরি দেওয়ার ক্ষেত্রে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। চাকরি প্রত্যাশীসহ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা এ কারণেই ভিসি লাউঞ্জের প্রধান ফটকে তালা লাগিয়ে দিয়েছে। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা কর্মসূচি চালিয়ে যাবেন বলেও জানান তিনি।

সূত্র বলছে, রাবি ভিসি প্রফেসর ড. আব্দুস সোবহান সোমবার জালাল উদ্দিন নামের এক ব্যক্তিকে এডহক ভিত্তিতে সেকশন অফিসার পদে নিয়োগ দেন। এ খবর ক্যাম্পাসে ছড়িয়ে পড়লে সন্ধ্যার পর প্রথমে ভিসির সঙ্গে তার বাসভবনে সাক্ষাৎ করেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। এর পর সেখান থেকেই বেরিয়ে এসেই বাসভবনে তালা দিয়ে অবস্থান করতে থাকেন।

তবে এ বিষয়ে ভিসি প্রফেসর ড. এম আব্দুস সোবহান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে অনুরোধ এসেছিল যে, একজন প্রতিবন্ধী প্রার্থীকে নিয়োগ দিতে হবে। তিনি শুধু সেটাই করেছেন। এর বাইরে আর কোনো নিয়োগ দেওয়ার ঘটনা ঘটেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *