প্রেমে বাধা দেয়ায় স্বামীর বিরুদ্ধে যৌতুক মামলা, শেষমেশ জেলে স্ত্রী

ফেনীতে মিথ্যা মামলায় অন্যকে ফাঁসাতে গিয়ে নিজেই ফেঁসে যাওয়ার ঘটনার আলামত পাওয়া গেছে। সোমবার (১১ জানুয়ারি) ফেনীর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাকির হোসাইনের আদালতে যৌতুক মামলার বাদী রুপালী আক্তারকে জেল ও জরিমানা করেন।

আদালতের সূত্রমতে, ২০১৫ সালের ২২ অক্টোবর পারিবারিক ভাবে সোনাগাজী উপজেলার রুপালী বেগমের সঙ্গে আলাউদ্দিন বিয়ে হয়। বিয়ের পর রুপালী বেগম অন্য পুরুষের সাথে মোবাইলে কথা বলা নিয়ে তর্কাতর্কিতে স্বামীর সাথে সম্পর্কের অবনতি শুরু হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে গৃহবধূ রুপালী আক্তার তার স্বামী আলাউদ্দিনের বিরুদ্ধে একটি যৌতুক মামলা  করেন।

ওই মামলায় সাক্ষ্যপ্রমাণের পর আদালত আলাউদ্দিনকে খালাস দিয়ে তাকে কেন মিথ্যা মামলায় হয়রানী করা হয়েছে জানতে চেয়ে স্ত্রীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেন। নোটিশের জবাবে রুপালী আক্তার নিজের দোষ স্বীকার করে আদালতের কাছে ক্ষমা চাইলে আদালত যৌতুক আইন ২০১৮ এর ৩ ধারায় হয়রানীমূলক মিথ্যা মামলার দায়ে ওই গৃহবধূকে ৪ হাজার টাকা জরিমানা ও ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেন।

আদালতের এপিপি নিমাইলাল সূত্রধর ফেনীর আদালতে মিথ্যা মামলায় বাদীকে সাজা দিয়ে কারাগারে প্রেরণের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.