সুযোগ হারালেন হোল্ডার–পোলার্ডরা

টেস্ট অধিনায়ক জেসন হোল্ডার নেই। নেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওয়ানডে ও টি–টোয়েন্টি অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড। বাংলাদেশ সফরে টেস্টের সহ–অধিনায়ক রোস্টন চেজসহ আরও কয়েকজন প্রথম পছন্দের খেলোয়াড়কেও পায়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তাঁদের এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেননি অনেকেই। করোনার এই সময়ে বাংলাদেশে আসতে যে মন সায় দেয়নি তাঁদের।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক ফাস্ট বোলার ফ্র্যাঙ্কলিন রোজও মেনে নিতে পারছেন না হোল্ডারদের সিদ্ধান্ত। ১৯৯৭ থেকে ২০০০ সালের মধ্যে ১৯টি টেস্ট খেলা এই পেসার দলের সেরা ক্রিকেটারদের সিদ্ধান্তে পুরোপুরি হতাশ। রোজ মনে করেন ‘নির্বোধ’ এসব ক্রিকেটার গড় বাড়িয়ে নেওয়ার সুযোগও হারিয়েছেন। তবে রোজ মনে করেন, এতে দলের প্রতি ক্যারিবীয় ক্রিকেটারদের দায়বদ্ধতার জায়গাটা সংকুচিত হয়ে যাবে।

রোজ বুঝতেই পারছেন না, হঠাৎ এমন কী হলো যে বাংলাদেশের করোনা নিয়ে ভয় পেয়ে গেলেন তাঁর উত্তরসূরিরা। ক্যারিবীয়রা যে ঘোর করোনার সময়েই ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড সফর গেল, সেটিও মনে করিয়ে দিয়েছেন রোজ, ‘এই খেলোয়াড়েরাই কোভিডের মধ্যেই ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড গেল। কিন্তু হঠাৎই বাংলাদেশ সফরে যেতে তাদের ভয় লাগল। এটা খুবই বাজে কাজ হয়েছে।’

বাংলাদেশ সফর থেকে নাম কাটানো হোল্ডার এখন খেলছেন অস্ট্রেলিয়ার বিগ ব্যাশ লিগে। হোল্ডারদের সরাসরিই দ্বিচারিতার অভিযোগে অভিযুক্ত করেছেন রোজ, ‘তারা বলছে, করোনাভাইরাসই হলো আসল কারণ। কিন্তু এসব খেলোয়াড়ের কয়েকজন অস্ট্রেলিয়ায় খেলছে। ওখানে কি করোনা নেই?’

রোজ বাংলাদেশে না আসা খেলোয়াড়দের বিচারবুদ্ধি নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। তা করতে গিয়ে অবশ্য বাংলাদেশের সামর্থ্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন রোজ, ‘আমি যদি এই সব খেলোয়াড় হতাম, আমি বাংলাদেশে যেতামই। কারণ, এই মুহূর্তে বিশ্বে বাংলাদেশই সবচেয়ে দুর্বল দল। আমি চেষ্টা করতাম নিজের ব্যাটিং ও বোলিং গড়ের উন্নতি করার।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *