কমে আসছে পশ্চিমবঙ্গে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের হিসাব অনুযায়ী, উত্তর ২৪ পরগনায় সংক্রমিত হয়েছেন ১৭৪ জন, মারা গেছেন ৭ জন। দক্ষিণ ২৪ পরগনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৩৭ জন, মারা গেছেন ৩ জন। হুগলি ও পূর্ব মেদিনীপুরে মারা গেছেন ২ জন করে।

সংক্রমিত হয়েছেন যথাক্রমে ২৭ ও ২৮ জন। পশ্চিম বর্ধমান, নদীয়া ও দার্জিলিং জেলায় মারা গেছেন ১ জন করে। পশ্চিম বর্ধমান, নদীয়া ও দার্জিলিং জেলায় আক্রান্ত হয়েছেন যথাক্রমে ১৫, ১৯ ও ২০ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমণের ঘটনা ঘটেনি কালিম্পং, উত্তর দিনাজপুর ও ঝাড়গ্রাম জেলায়। কোচবিহার ও পুরুলিয়ায় সংক্রমিত হয়েছেন ২ জন করে, দক্ষিণ দিনাজপুরে ৩ জন।

রাজ্য সরকারের সূত্র বলছে, করোনা টিকা কর্মসূচি শুরু হলে প্রথম পর্যায়ে আড়াই কোটি ডোজ টিকার প্রয়োজন হবে। এ নিয়ে রাজ্য সরকার আজ মঙ্গলবার বৈঠক করবে। এরপর কেন্দ্রীয় সরকারকে বিষয়টি জানানো হবে। সরকারের বুলেটিন বলছে “ সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় পশ্চিমবঙ্গে করোনায় সংক্রমিত হয়েছে ৫৯৭ জন। মারা গেছে ২৫ জন। এই রাজ্যে গত সাত মাসে এই হার সর্বনিম্ন।”

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি–বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন ৯ হাজার ৮১৭ জন। এই রাজ্যে মোট সংক্রমণের সংখ্যা ৫ লাখ ৫৫ হাজার ৫৭২। মোট মৃত মানুষের সংখ্যা ৯ হাজার ৮১৭। ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৩৪৭ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৫ লাখ ৩৬ হাজার ৮৪ জন।

রাজ্য সরকার আশা করছে, প্রাথমিক পর্যায়ে তাদের হাতে অক্সফোর্ডের কোভিশিল্ড ও বায়োটেকের কোভ্যাক্সিন টিকা পৌঁছাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.