নিজেদের টিকা নিবেন পুতিন

রাশিয়ার তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা ‘স্পুতনিক-৫’ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।চলতি মাসের শুরুর দিকে রাশিয়া ‘স্পুতনিক-৫’ টিকা দেওয়ার ঐচ্ছিক কর্মসূচি শুরু করে। মস্কোয় সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা গোষ্ঠীগুলোকে দিয়ে এই টিকাদান কার্যক্রম শুরু করা হয়।

মস্কোর মেয়রের এই ঘোষণার আগের দিন রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, পৃথক ট্রায়ালের পর বয়স্ক ব্যক্তিদের করোনার টিকা প্রদানের বিষয়টি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ৬০ বছরের বেশি বয়সী ব্যক্তিদের আজ সোমবার থেকে করোনার এই টিকা দেওয়া হতে পারে।

গত আগস্টে পুতিন জানান, তাঁর এক মেয়ে করোনার টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে অংশ নিয়েছেন। টিকা নেওয়ার পর তাঁর কোনো সমস্যা হয়নি। ৬৮ বছর বয়সী পুতিন আগে জানিয়েছিলেন, রাশিয়ার টিকা নিরাপদ ও কার্যকর। এই টিকা গ্রহণ না করার কোনো কারণ তিনি দেখেন না।

গত আগস্টে রাশিয়া ‘স্পুতনিক-৫’ টিকার অনুমোদন দেয়। এটি বিশ্বে রাষ্ট্রীয় অনুমোদন পাওয়া প্রথম করোনার টিকা। রাশিয়ার ভাষ্য, তাদের উদ্ভাবিত ‘স্পুতনিক-৫’ টিকাটি ৯৫ শতাংশ কার্যকর।

অক্টোবরের মাঝামাঝি রাশিয়া করোনার দ্বিতীয় টিকার অনুমোদন দেয়। দ্বিতীয় টিকাটির নাম ‘এপিভ্যাককরোনা’। পরে তৃতীয় টিকার নিবন্ধন দেওয়া হবে বলে জানায় রাশিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published.