ইতালিতে বড়দিনে  হতাশ প্রবাসীরা

বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) মধ্যরাত থেকেই ইতালিতে পূর্ণ লকডাউন শুরু হয়েছে। চলবে জানুয়ারি মাসের ৬ তারিখ পর্যন্ত। পূর্ণ লকডাউনের মধ্যেই ইতালিতে বড়দিন, থার্টি ফার্স্ট নাইট ও নতুন বছর বরণ করা হবে। আয়োজন থাকবে বাসা বাড়িতেই। এতে হতাশ প্রবাসী বাংলাদেশি ছাড়াও সাধারণ ইতালিয়ানরাও। এ বছর ভ্যাটিকান সিটিতে বড়দিনের সমাবেশও হচ্ছে না।

রাজধানী রোমে ব্যাপক আলোকসজ্জা করা হলেও বড়দিনের আনন্দ নেই কারো মনেই। লকডাউনের কারণে সবার মধ্যে বিরাজ করছে হতাশা। তবুও বুধবার বড়দিনের কেনাকাটায় ব্যস্ত ছিলেন ইতালীয় নাগরিকরা। সুপার মার্কেটগুলোতে উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে। কিন্তু লকডাউনের কারণে প্রবাসী বাংলাদেশিরা আবারও ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন।

এক প্রবাসী বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে গত কয়েক মাস ধরে কোন ব্যবসা বাণিজ্য নেই। ক্রিসমাসেও তেমনি বেচা-বিক্রি হয়নি।লকডাউন চলাকালে বার রেস্টুরেন্ট পানশালাসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান সন্ধ্যার পর বন্ধ থাকবে। লকডাউনের এই সময়ে নাগরিকদের যাতায়াতের ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। অমান্যকারীদের গুনতে হবে মোটা অঙ্কের জরিমানা।

ইতালিতে এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ১ কোটি ৯৯ লাখ ১ হাজার ২৭৪ জন। ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছে মারা গেছে ৭০ হাজার ৩৯৫ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ১ কোটি ৩২ লাখ ২ হাজার ৬৭ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *