ধর্ষণের হুমকির মুখে কঙ্গনাকে

দেশ–বিদেশের নানা ইস্যুতে অনলাইনে সবসময় সরব থাকেন বলিউড তারকা কঙ্গনা রনৌত। অনেকে মনে করেন, এসব তিনি  তাঁর আনন্দের জন্য করছেন। অথচ তারকা হিসেবে সামাজিক দায়িত্ব নিয়েই হয়তো এসব করছেন তিনি। এ কাজে তাঁর ওপর ক্ষিপ্ত অনেকেই। সম্প্রতি নাকি তাঁকে ধর্ষণের হুমকিও দেওয়া হচ্ছে।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও দিলজিৎ দোসাঞ্জকে আক্রমণ করে নতুন একটি ভিডিও আপলোড করেছেন কঙ্গনা রনৌত। তিনি বলেছেন, ‘আমার দেশপ্রেম নিয়ে বারবার প্রশ্ন ওঠে। কিন্তু প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও দিলজিৎ দোসাঞ্জের মতো মানুষের দিকে আঙুল তোলা হয় না কেন? আমি চাই, তাঁদের উদ্দেশ্য ও নীতি নিয়েও প্রশ্ন উঠুক।’ কৃষক আন্দোলন নিয়ে তিন-চার সপ্তাহ ধরে উত্তাল ভারত। নতুন কৃষি আইনের বিরুদ্ধে পঞ্জাব ও হরিয়ানার কৃষকেরা দিল্লির রাস্তায় জড়ো হয়েছেন। পাঞ্জাব ও মুম্বাইয়ের তারকাদের একাংশ কৃষকদের সমর্থনে এগিয়ে এসেছেন। সেই প্রতিবাদকে ‘দেশদ্রোহী’ কার্যকলাপ বলে উল্লেখ করেছিলেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রনৌত। তারপর থেকে অনলাইনে নানাভাবে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার মুখোমুখি হচ্ছেন তিনি। এমনকি দিলজিৎ ও তাঁর মধ্যে বাগ্‌যুদ্ধও শুরু হয়ে গেছে। এ নিয়ে আবারও প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ‘কুইন’ ছবির এই অভিনেত্রী।

নতুন ভিডিওতে কঙ্গনা বলেছেন, ‘সন্ত্রাসবাদীরা এই আন্দোলনকে নিজেদের আওতায় নিয়ে আসার চেষ্টা করছে। আর সেটা আপনারা হতে দিচ্ছেন কীভাবে? তাদের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই আমার। কারণ আমি জানি, তারা চায় দেশটা ছিন্নভিন্ন হয়ে যাক। দেশের সরল কৃষকেরা কেন এটা হতে দিচ্ছেন, সেটা ভেবেই অবাক হচ্ছি। আপনাদের কাছে আমি প্রতিজ্ঞা করেছিলাম যে এই আন্দোলন নিয়ে কথা বলব। আমি চেয়েছিলাম, কৃষক আন্দোলনের আসল উদ্দেশ্য যত দিন না সামনে আসছে, তত দিন আমি কিছু বলব না। ঠিক যেমনটা শাহিনবাগের ক্ষেত্রে আমরা হতে দেখেছি। কিন্তু ১০-১২ দিন ধরে অনলাইনে যে পরিমাণ ধর্ষণের হুমকি পাচ্ছি, তাতে আমি স্থির করেছি, এই বিষয়ে আমার কিছু প্রশ্ন নিয়ে হাজির হওয়া উচিত।’ কঙ্গনার সেসব প্রশ্নের প্রধান প্রশ্নটিই হচ্ছে, কেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও দিলজিৎ দোসাঞ্জের দিকে আঙুল তোলা হচ্ছে না? কেন বারবার তাঁকেই প্রশ্ন করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.