চূর্ণ-বিচূর্ণ ভারত

চার ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতেই ভারত যেভাবে চূর্ণ-বিচূর্ণ হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার কাছে, পুরো ক্রিকেট বিশ্বেই গত কদিনে এ নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনা কোহলিদের নিয়ে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যঙ্গ-বিদ্রূপ তো আছেই, সাবেক ক্রিকেটারদের কেউ ধুয়ে দিচ্ছেন, কেউ খোঁচা দেওয়ার মোক্ষম সুযোগটা হাতছাড়া করছেন না। অস্ট্রেলিয়ার সাবেক উইকেটকিপার হাডিন বলেছেন, ‘আমার মনে হয় না তারা আর এই ধাক্কা সামলে উঠতে পারবে। আমি ভেবেছিলাম অ্যাডিলেডে প্রথম টেস্টটাই (দিবারাত্রির টেস্ট) ছিল তাদের জেতার একমাত্র সুযোগ।‘

সাবেক উইকেটকিপার বলেছেন, ‘ভেবেছিলাম কন্ডিশনটা তাদের বোলিংয়ের জন্য ভালো। তারা ভালো রানও পেয়েছে। তবে ভাবিনি তারা এভাবে উল্টো বিচূর্ণ হবে। সিরিজের একটা টেস্ট (চতুর্থ) আছে ব্রিসবেনে, যেখানে কোনো দল অস্ট্রেলিয়াকে হারাতে পারেনি। আগামী দুই সপ্তাহে ভারতীয় দলকে ঘুরে দাঁড়াতে হবে। কিন্তু মনে হয় না তারা সেটা পারবে।

মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে (এমসিজি) অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ভারত ‘বক্সিং ডে’ টেস্ট খেলতে নামছে ২৬ ডিসেম্বর।অ্যাডিলেডে ৩৬ রানের লজ্জার পর ভারতের মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে পরবর্তী টেস্টের একাদশ গড়া। সন্তানসম্ভবা স্ত্রীর পাশে থাকতে অধিনায়ক বিরাট কোহলি দেশে ফিরছেন। অ্যাডিলেডে চোট পেয়ে ছিটকে গেছেন মোহাম্মদ শামি। চোট কাটিয়ে উঠতে না পারায় দলে নেই আরেক অভিজ্ঞ পেসার ইশান্ত শর্মাও। ২০১৮-১৯ মৌসুমে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জয়ে যে বোলাররা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন, তাঁদের দুজনকে একসঙ্গে না পাওয়াটা ভারতের জন্য বড় ধাক্কাই মনে করেন হাডিন, ‘গতবার তারা দুর্দান্ত বোলিং আক্রমণ নিয়ে অস্ট্রেলিয়া সফরে এসেছিল। এখন শামির খুব ভালো বিকল্পও তাদের হাতে নেই।’
বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটিং লাইনআপ নিয়েও যেভাবে হুড়মুড়িয়ে ধসে পড়েছে ভারত, হাডিনের কাছে সেটি ‘গভীর চিন্তার বিষয়’। কোহলির অনুপস্থিতিতে ভারতীয় ব্যাটিং লাইনআপটা কেমন হবে, সেটি নিশ্চিত নন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক উইকেটকিপারও, ‘কয়েকজন ভারতীয় ব্যাটসম্যানের পারফরম্যান্স আগামী কয়েক সপ্তাহ আতশ কাচের নিচে থাকবে। তারা কি সাহাকে (ঋদ্ধিমান) খেলিয়ে যাবে? টপ অর্ডারে পৃথ্বী শর বিকল্প হবে কে? রোহিত শর্মা কোয়ারেন্টিন শেষ করেছে। সে কি দলে যোগ দেবে? পরের টেস্টের আগে এই সপ্তাহে তাদের অনেক প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *