স্বাস্থ্য বিধি মেনে ঈদ জামাত

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের বিস্তার মারাত্মক আকার ধারণ করায় সবার সুরক্ষা নিশ্চিত করতে ঈদ জামাতের কিছু   সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে সোমবার ধর্ম মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। মানতে হবে সকল ধরনের নিয়ম কানুন। সবাইকে বাসা থেকে ওজু করে মসজিদে যেতে হবে মাস্ক পরে। কাতারে দাঁড়াতে হবে দূরত্ব রেখে। নামাজ শেষে কোলাকুলি বা হাত মেলানো যাবে না। ঈদগাহ বা খোলা মাঠে ঈদের জামাত হবে না।

ইসলামী শরিয়ায় ঈদগাহ বা খোলা জায়গায় ঈদের নামাজ জামাত আদায় করতে উৎসাহ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু নামাজ শেষে কোলাকুলি করা যাবে না, যাবে না হাত মেলানো।

ধর্ম মন্ত্রণালয় নির্দেশনা গুলো হলোঃ

 

  • মসজিদের প্রবেশদ্বারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ সাবান-পানি রাখতে হবে।

 

  • মসজিদে ওজুর জায়গাতেও সাবান বা হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখতে হবে।

 

  • ঈদের জামাতের সময় মসজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না।

 

  • নামাজের আগে সম্পূণ মসজিদ জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। সবাই যার যার দায়িত্বে জায়নামাজ নিয়ে আসতে পারবেন।

 

  • প্রত্যেকে নিজ নিজ বাসা থেকে ওজু করে মসজিদে আসবেন। ওজু করার সময় কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে।

 

  • ঈদের নামাজে অংশ নিতে অবশ্যই মাস্ক পরে মসজিদে আসতে হবে।

 

  • মসজিদে সংরক্ষিত জায়নামাজ ও টুপি ব্যবহার করা যাবে না।

 

  • ঈদের নামাজ কাতারে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতে হবে।

 

  • শিশু, বয়োবৃদ্ধ, অসুস্থ ব্যক্তি এবং অসুস্থদের সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তিদের ঈদের জামায়াতে অংশগ্রহণ থেকে বিরত থাকতে বলা হচ্ছে।

 

  • মসজিদে ঈদের জামায়াত শেষে কোলাকুলি বা হাত মেলানো পরিহার করতে অনুরোধ করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *