বিশালাকৃতির কৃত্রিম দ্বীপ

৩৫ হাজার লোকের বসবাসের জন্য এবং সমুদ্র পৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি থেকে ঝুঁকিতে থাকা কোপেনহেগেন বন্দরকে সুরক্ষা দেওয়ার লক্ষ্যে ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহেগেনের উপকূলে বিশালাকৃতির একটি কৃত্রিম দ্বীপ তৈরির প্রকল্প করছে।

প্রকল্পটির কাজ শুরু হবে এ বছরের শেষে। কিন্তু পরিবেশবাদীদের বিরোধিতার মুখে পড়েছে এই প্রকল্প। নির্মাণকাজের পরিবেশগত প্রভাব নিয়ে তারা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। লিনেটহোম দ্বীপকে ঘিরে একটি বেড়িবাঁধ তৈরির পরিকল্পনা করা হয়েছে যে বাঁধ বন্দরকে ডুবে যাওয়ার ঝুঁকি এবং ঝড়ঝঞ্ঝার জলোচ্ছ্বাস থেকে বাঁচাবে। নির্মাণকাজ পরিকল্পনা মাফিক এগোলে উপকূলে এই দ্বীপ তৈরির জন্য ভিত বসানোর বেশিরভাগ কাজ ২০৩৫ সালের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে এবং পুরো দ্বীপটি তৈরির কাজ সম্পূর্ণ হবে ২০৭০ সালে।

এই দ্বীপ তৈরির জন্য সংসদে বিল পাস হবার সময় সংসদ ভবনের বাইরে জমায়েত হয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন পরিবেশ সংরক্ষণবাদীরা। ডেনমার্কের প্রচারমাধ্যমের খবরে জানানো হয় এই বিলের পক্ষে ভোট পড়েছে ৮৫টি এবং বিপক্ষে ১২টি। শহরে প্রতিদিন লরির সংখ্যা ব্যাপকভাবে বাড়ায় আশঙ্কা প্রকাশ করেন বিক্ষোভকারীরা। নিকোলাম উলহেড নামে একজন প্রতিবাদকারী বলেন, নভেম্বরে স্থানীয় নির্বাচনের আগে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ সঠিক হয়নি।

ডেনমার্কের ইতিহাসে এটা এ যাবত সবচেয়ে বিশাল অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প। এই প্রকল্প নিয়ে জনগণের মতামত জানানোর সুযোগ ছিল স্থানীয় নির্বাচনের মাধ্যমে। কিন্তু মানুষকে সেই সুযোগ থেকে বঞ্চিত করা হলো।ডেনমার্কের সড়কে মালামাল পরিবহন বিষয়ক সমিতির প্রধান কারিনা ক্রিস্টেনসেন বলেছেন, লিনেটহোম প্রকল্পের নির্মাণ কাজে মালামাল পরিবহনের সময় ‘পরিবেশ বান্ধব’ পরিবহন ব্যবহার করার কথা ভাবা যেতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *