নোবেলের বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়েরি

তরুণ আলোচিত ও সমালোচিত গায়ক মাইনুল আহসান নোবেলের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।নোবেলের বিরুদ্ধে সাংবাদিককে  হুমকি  দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া যায়। আজ ঢাকার কলাবাগান থানায় তার নামে সাধারণ ডায়েরিকরা হয়।

মিডিয়া লিমিটেডের জ্যেষ্ঠ নির্বাহী, প্রশাসন ও পরিচালন বিভাগের সৈয়দ আসাদুজ্জামান তিনি থানায় হাজির হয়ে নোবেলের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি দায়ের করেন। তিনি ডায়রিতে উল্লেখ করেন,” রোববার দিবাগত রাত ১২টা ৪৫ মিনিটে নোবেলের ব্যক্তিগত নম্বরে ফোন করেন সময় টিভির সাংবাদিক আল কাছির। পরিচয়ের পর নোবেল সাংবাদিককে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে ফোন কেটে দেন।

তারপর ১২টা ৪৮ মিনিটে নোবেল নিজেই প্রতিবেদক আল কাছিরকে ফোন করে অপ্রকাশযোগ্য ভাষায় গালাগালি করেন এবং তাঁকে জেলে নেওয়ার হুমকি প্রদান করেন। শুধু তা–ই নয়, নোবেল সময় টেলিভিশনকে নিয়েও আপত্তিকর, কুরুচিপূর্ণ এবং অশ্লীল ভাষায় গালাগালি করেন। এ সময় তিনি প্রথম আলো, চ্যানেল ২৪সহ ১০ সাংবাদিককে জেলে নেওয়ার হুমকিও দেন।”

সম্প্রতি নগরবাউল জেমস, সুরকার ইথুন বাবু এবং সংগীতশিল্পী তাপসকে নিয়েও কুরুচিপূর্ণ স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন। সবশেষ নোবেল তাঁর ফেসবুকে নিজের মৃত্যুতারিখ ঘোষণা করে স্ট্যাটাস দেন। পেশাগত দায়িত্ব হিসেবে সময় টিভির নিজস্ব প্রতিবেদক আল কাছির বিষয়টি নিয়ে নোবেলের সঙ্গে কথা বলার প্রয়োজন মনে করেন।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি  নোবেলের এমন আচরণে নিন্দা প্রকাশ করেছে। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান বাবু স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে আজ সোমবার এ নিন্দা জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, মাইনুল হাসান নোবেল সাংবাদিক আল কাছিরকে অপহরণের হুমকি দিয়েছেন। সময় টিভির সময় নিউজের সাংবাদিক ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতির এই সদস্যকে ১৬ তারিখ দিবাগত রাতে মুঠোফোনে হুমকি দেন নোবেল। যার তথ্যপ্রমাণ আল কাছিরের ফোনে ধারণ করা রয়েছে। সেই সঙ্গে নোবেল অশ্রাব্য ভাষায় তাঁকে গালিগালাজ করেন। নোবেলের এমন আগ্রাসী আচরণের আমরা তীব্র প্রতিবাদ জানাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *