চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল

স্বাভাবিকভাবেই সব প্রাইজমানি জলাঞ্জলি দিয়ে হলেও চ্যাম্পিয়নস লিগ জিততে চাইবে পেপ গার্দিওলার দল। তবু প্রাইজমানিকে তো আর অস্বীকার করা যায় না। চেলসির ক্ষেত্রেও তো তা-ই, চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ের স্বাদ ক্লাবটির জানা থাকলেও ফাইনালে তারা তিল পরিমাণ ছাড় দেবে না। বাংলাদেশ সময় আজ রাত ১টায় পর্তুগালের পোর্তোয় অনুষ্ঠেয় ফাইনালে সিটির প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ডেরই ক্লাব চেলসি।

চ্যাম্পিয়নস লিগজয়ী দল পাবে ১৯ মিলিয়ন বা ১ কোটি ৯০ লাখ ইউরো। বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১৯৬ কোটি টাকা প্রায়। ফাইনালে হেরে যাওয়া দল চ্যাম্পিয়ন দলের তুলনায় ৪ মিলিয়ন বা ৪০ লাখ ইউরো কম প্রাইজমানি পাবে—১ কোটি ৫০ লাখ ইউরো। গ্রুপ পর্বে প্রতি জয়ে ২.৭ মিলিয়ন বা ২৭ লাখ ইউরো করে দেয় উয়েফা। প্রতি ড্রয়ের জন্য ৯ লাখ ইউরো।এরপর নকআউট পর্বে প্রতিটি ধাপে আয়ের সুযোগ রেখেছে উয়েফা। শেষ ষোলোতে জিতে কোনো দল কোয়ার্টার ফাইনালে উঠলেই পাবে ৯৫ লাখ ইউরো। কোয়ার্টার ফাইনাল জিতলে পাবে ১ কোটি ৫ লাখ ইউরো। সেমিফাইনাল জিতলে ১ কোটি ২০ লাখ।

গ্রুপ পর্বে সিটি ৫ ম্যাচ জয়ের পাশাপাশি এক ম্যাচ ড্র করেছে। অর্থাৎ এর মধ্যেই তারা ৬০ মিলিয়ন ইউরোর বেশি আয় করেছে। চেলসি গ্রুপ পর্বে জিতেছে চার ম্যাচ, সঙ্গে দুটি ড্র। অর্থাৎ তারা আয় করেছে ৬০ মিলিয়ন ইউরোর নিচে। সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, সম্প্রচার স্বত্ব ও স্পনসর বাবদ উয়েফার আয় ৮ শতাংশ বেড়ে ৩.৫ বিলিয়ন বা ৩৫০ কোটি ইউরো হওয়ায় চ্যাম্পিয়নস লিগের আগামী তিন মৌসুমে আয় বাড়বে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া ক্লাবগুলোর।

Leave a Reply

Your email address will not be published.