ফাইনালে বার্সেলোনা

স্প্যানিশ সুপার কাপে বার্সেলোনা। রিয়াল সোসিয়েদাদকে পেনাল্টি শুটআউটে ৩–২ গোলে হারিয়েছে মেসিকে ছাড়াই খেলা বার্সা। মেসি ম্যাচটি খেলেননি ঊরুর চোটে। নির্ধারিত সময়ে ১–১ গোলে ড্র থাকার ম্যাচ অতিরিক্ত সময়ে গড়ায়। তখনো নিষ্পত্তি না হলে টাইব্রেকারে যায় কর্দোবার নিরপেক্ষ ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত ম্যাচটি।

৩৯ মিনিটে ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ংয়ের হেডে এগিয়ে যায় সুপার কাপের ইতিহাসে সবচেয়ে সফল দলটি। ৫১ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে সোসিয়েদাদকে সমতায় ফেরান মিকেল ওইয়ারসাবাল। নির্ধারিত সময়ে গোল করা দুই খেলোয়াড়ই টাইব্রেকারে ব্যর্থ হয়েছেন। সোসিয়েদাদের ওইয়ারসাবাল ও জন বাউতিস্তার শট ফিরিয়ে দেন টের স্টেগেন। আর উইলিয়ান হোসের শট লাগে পোস্টে। টাইব্রেকারে বার্সার হয়ে মিস করেছেন ডি ইয়ং ও আঁতোয়ান গ্রিজমান। বার্সার হয়ে পঞ্চম শটে মাথা ঠান্ডা রেখে গোল করেন মিডফিল্ডার রিকি পুচ।

এই ডি ইয়ংয়ের ভুলেই ম্যাচে ফেরে রিয়াল সোসিয়েদাদ। দ্বিতীয়ার্ধের ষষ্ঠ মিনিটে বার্সার পেনাল্টি বক্সে ডি ইয়ংয়ের হাতে লাগে বল। পেনাল্টি দিতে ভুল করেননি রেফারি। আর তা থেকে ওইয়ারসাবালের সেই গোল। এরপর নির্ধারিত সময়ে এগিয়ে যাওয়ার তিনটি সুযোগ হারিয়েছে বার্সেলোনা।

ম্যাচের শেষে বার্সা কোচ রোনাল্ড কোমান জানালেন, “টাইব্রেকারের পঞ্চম শটটি নিতে পুচ নিজেই এগিয়ে এসেছিলেন প্রথম চারটি পেনাল্টি কারা নেবে সেটি লিখে ফেলেছিলাম। এরপর জিজ্ঞেস করলাম পঞ্চম শটটি কে নেবে, রিকি (পুচ) বলল, সে নেবে। দারুণ। ভালো এক ম্যাচ হয়েছে। দুদলই ভালো খেলেছে, জিততে পারত যে কোনো দলই।“

আগামী রোববারের ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদ কিংবা অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে খেলবে বার্সেলোনা। আজ দ্বিতীয় সেমিফাইনালে মুখোমুখি বিলবাও ও রিয়াল। ফাইনালে মেসির খেলার সম্ভাবনা আছে। তবে বার্সা কোচ রোনাল্ড কোমান বলেছেন, মেসির ফাইনালে খেলার বিষয়ে পরে সিদ্ধান্ত নেবেন তাঁরা।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.