টিকার ব্যাপারে ঢাকা দিল্লি

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন  বলেন, ”আমাদেরকে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, আমাদের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় চুক্তি হয়েছে সেটি পালন করা হবে। ওরা বলেছে, ভ্যাকসিনের বিষয়ে অন্য কোনো নিষেধাজ্ঞা থাকতে পারে। কিন্তু যেহেতু একেবারে সর্বোচ্চ পর্যায় অর্থাৎ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মধ্যে আলাপ করে এটা হয়েছে, কাজেই বাংলাদেশ প্রথম টিকা পাবে। কোনো ধরনের নিষেধাজ্ঞা এখানে কার্যকর হবে না।”

চুক্তিটি দুই দেশের সরকারের মধ্যে হয়েছিল কিনা জানতে চাইলে আব্দুল মোমেন বলেন, ”এটি আমার জানা নেই।”  তিনি বলেন, ”টিকা যথাসময়ে আসবে, দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই। স্বাস্থ্য মন্ত্রী যেভাবে বলেছেন—হয়তো এ মাসের শেষে আসবে।”

অন্য কোনো জায়গা থেকে ভ্যাকসিন সংগ্রহের পরিকল্পনা আছে কিনা জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বিভিন্ন বিষয় খতিয়ে দেখছি।’ তিনি জানান এর আগে ভারতের হাইকমিশনার বাংলাদেশকে জানিয়েছিলেন, ভারত নতুন যে টিকা তৈরি করেছে, সেটি এখনো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পায়নি। এটি জরুরি ভিত্তিতে ভারতের কিছু নাগরিকের ওপর প্রয়োগ করা হচ্ছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, বাংলাদেশ যথাসময়ে করোনাভাইরাসের টিকা পাবে বলে জানিয়েছে ভারত। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.