১৩২ বাংলাদেশি সৌদি থেকে ফিরলেন !

গত বছ‌রের ম‌তো  নতুন বছরের শুরুতেও সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশিদের ফেরা অব্যাহত রয়েছে। মঙ্গলবার রাত ১১টা ২০ মিনিটে ও দিবাগত রাত দেড়টায় সৌদি এয়ারলাইন্সের এসভি ৮০৪ ও এসভি ৮০২ দুটি বিমান করে দেশটি থেকে পাঁচ নারীসহ ১৩২ জন বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন। এ নিয়ে গত সাত দিনে ৪০ নারীসহ ৭৬৭ বাংলাদেশি দেশে ফিরলেন।গতকালও ফেরত আসাদের মাঝে প্রবাসী কল্যাণ ডেক্সের সহযোগিতায় ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম থেকে খাবার-পানিসহ নিরাপদে বাড়ি পৌঁছানোর জন্য জরুরি সহায়তা প্রদান করা হয়। এছাড়া বিদেশ থেকে ফেরা মানুষদের কাউন্সিলিং ও আর্থিকভাবে পুনরেকত্রীকরণের কর্মসূচি নিয়েছে ব্র্যাক।

গতকাল মঙ্গলবার ফেরত আসাদের একজন নুর বেগম (৪০) জানান, ২০১৯ সনের এপ্রিল মাসে তিনি সৌদি আরবে গিয়েছিলেন। সেখানে নিয়োগকর্তার নির্যাতনের শিকার হয়ে পালিয়ে আশ্রয় নিয়েছিলেন বাংলাদেশ দূতাবাসের সেইফ হোমে। তাকে ঠিকমত খাবার ও নিয়মিত বেতন দেয়া হতো না। বেতন চাইতে গেলে তার ওপর নির্যাতন চালানো হতো।একই পরিস্থিতির শিকার হয়ে ফিরেছেন যশোর জেলার খাদিজা বেগম, নারায়নগঞ্জের সেফালী বেগম, ঝিনাইদহের শিল্পি খাতুন ও ঢাকার সুবর্ণা বেগম।

একই সাথে দেশে ফিরেছেন নোয়াখালীর ফারুক, কুমিল্লার সাইফুল, চট্টগ্রামের তাসলিম আরিফ, পাবনার জুয়েল শেখসহ ১৩২ বাংলাদেশি।দেশে ফেরা অনেক যুবকের অভিযোগ, আকামা তৈরির জন্য কফিলকে (নিয়োগকর্তা) টাকা প্রদান করলেও কফিল আকামা তৈরি করে দেয়নি। পুলিশের হাতে গ্রেপ্তারের পর কফিলের সাথে যোগাযোগ করলেও গ্রেপ্তারকৃত কর্মীর দায়-দায়িত্ব নিচ্ছে না। বরং কফিল প্রশাসনকে ক্রুশ (ভিসা বাতিল) দিয়ে দেশে পাঠিয়ে দিতে বলেন।

Are you happy ? Please spread the news