চ্যাম্পিয়ন গ্রুপ এফ

এবারের ইউরো ২০২০ আসরের এফ গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন দল গুলো পরেছে। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন পর্তুগাল, বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স ও সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানি এবং অন্য আরেকটি দল হাঙ্গেরি। তবে ফেবারিট ৩টি দলই আলোচনার শীর্ষে।

জার্মানি: তিন বারের ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়ন জার্মানি। শুধু তাই নয়, সর্বশেষ তিন ইউরো আসরের প্রত্যেকটিতে কমপক্ষে সেমি-ফাইনাল খেলেছে জোয়াচিম লোর শিষ্যরা। বাছাইপর্বে হল্যান্ডকে পেছনে রেখে শীর্ষ দল হিসেবে অবশ্য চুড়ান্ত পর্ব নিশ্চিত করেছে র্জামানরা। এরপর সম্প্রতি স্পেনের মুখোমুখি হয়ে ৬-০ গোলে পরাজয়ের লজ্জায় পড়তে হয়েছে জার্মানদের। বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে তারা নিজেদের মাঠেই ২-১ গোলে হেরেছে উত্তর মেসিডোনিয়ার কাছে।দীর্ঘ ১৫ বছর জাতীয় দলের দায়িত্ব পালন করা কোচ জোয়াচিম লো এবারের ইউরো শেষ করেই বিদায় নিতে যাচ্ছেন।

থমাস মুলার তাদের আলোচিত খেলোয়ার। এটি ঠিক যে এবারের আসরে জার্মান দলটি খুব বেশি নির্ভর করবে জসুয়া কিমিচ ও টনি ক্রুসের মত মানসম্মত খেলোয়াড়দের উপর। তবে ইউরোতে দলটির সফলতা মুলারের উপরও নির্ভরশীল। বায়ার্ন মিউনিখে ৩১ বছর বয়সি এই ফুটবলার প্রত্যাশার চেয়েও ভাল ফুটবল খেলেছেন।

ফ্রান্স: ২০১৮ সালের বিশ্বকাপ ও ইউরো সফলতার পর ফ্রান্সকে এবার তারাই যে প্রেরনা জুগিয়ে দিচ্ছে সে বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই।বিশ্বসেরা মেধাবীদের নিয়েই গঠিত হয়েছে কোচ দিদিয়ের দেশ্যমের এবারের স্কোয়াডটি। বেনজেমা পুনরায় ডাক পাওয়ায় এই দলের স্থান নিয়েই রিতিমত প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়েছে মেধাবি তারকাদের মধ্যে। একজন এমবাপ্পে, বেনজেমা কিংবা গ্রীজম্যানকে পেলেই বর্তে যাবে বিশ্বের যে কোন দেশ।

করিম বেনজেমা তাদের আলোচিত খেলোয়ার। রিয়াল মাদ্রিদের ৩৩ বছর বয়সি এই স্ট্রাইকার দীর্ঘ সাড়ে ৫ বছর নির্বাসিত থাকার পর ডাক পেয়েছেন ফরাসি জাতীয় দলে। একটি প্রতরনা কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে ২০১৫ সালের পর জাতীয় দল থেকে নির্বাসিত হন তিনি।

পর্তুগাল: পর্তুগাল বর্তমান ইউরোপিয় চ্যাম্পিয়ন। সর্বশেষ ৫ আসরের চারটিতেই দলটি ন্যুনতম পক্ষে সেমি-ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। এবারের বছাইপর্বে ইউক্রেনের পেছনে থেকে নিজ গ্রুপের দ্বিতীয় স্থান নিয়ে ইউরোর চুড়ান্ত পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে পর্তুগাল। যে দলটির প্রান ভোমরা ৩৬ বছর বয়সি ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। ২০১৯ সালের নেশন্স লিগের শিরোপাও লাভ করেছে পর্তুগাল।

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো আলোচিত খেলোয়াড় । পর্তুগালে যদি কোন খেলোয়াড়কে মেধাবি আখ্যা দিতে হয় তাহলে যে রোনালদোর নামটি সর্বাগ্রে চলে আসবে সে বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই। সর্বাধিক ম্যাচ খেলা এই পর্তুগাল অধিনায়কের নামের পাশে রয়েছে ১০৩টি আন্তর্জাতিক গোল। যার মধ্যে এবারের বাছাইপর্ব থেকে এসেছে ১১টি।

হাঙ্গেরি: নেশন্স লিগের প্লে অফের হয়ে এই নিয়ে টানা দ্বিতীয় বারের মত সরাসরি ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে ম্যাগায়ার্সরা। বাছাইপর্বে গ্রুপে তাদের অবস্থান ছিল চতুর্থ। তবে প্লে অফে তারা হারিয়ে দিয়েছে বুলগেরিয়া ও আইসল্যান্ডকে।ইতালীয় কোচ মার্কো রোসির অধীনস্থ হাঙ্গেরি এবারের টুর্নামেন্টের প্রথম দুটি খেলার সুযোগ পাবে নিজ ভুমি বুদাপেস্টে। আলোচিত খেলোয়াড় পিটার গুলাকসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *