আবারো আল-আকসায় হামলা

সোমবার ভোরে আবারও ইসরায়েলি বাহিনী পূর্ব জেরুজালেমে আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে ঢুকে হামলা চালিয়েছে। ফিলিস্তিনি মুসল্লিদের ওপর রাবার বুলেট, কাঁদানে গ্যাসের শেল ও বোমা ছুড়েছে। পূর্ব জেরুজালেমের শেখ জারাহ এলাকা থেকে ৭০টির বেশি ফিলিস্তিনি পরিবার উচ্ছেদের ঝুঁকির মুখে পড়েছে। তা নিয়েই সপ্তাহ ধরে উত্তেজনা শুরু হয়।

আল-আকসা মসজিদ ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের কাছে অন্যতম পবিত্র স্থান হিসেবে বিবেচিত। তবে এটি ইহুদিদের কাছেও একটি পবিত্র স্থান, যাকে তারা টেম্পল মাউন্ট হিসেবে জানেন।ইহুদি বসতি স্থাপনকারীদের একটি সংস্থার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ওই পরিবারগুলোকে উচ্ছেদের পক্ষে রায় দিয়েছিলেন ইসরায়েলি আদালত। এর বিরুদ্ধে ইসরায়েলের সুপ্রিম কোর্টে আপিল শুনানিকে সামনে রেখে দুই পক্ষে উত্তেজনা দেখা দেয়। তবে গতকাল রোববার ওই মামলার শুনানি পিছিয়ে গেছে। আগামী ৩০ দিনের মধ্যে নতুন তারিখ দেওয়া হবে।

ইসরায়েলি বাহিনীর হামলায় আহত ব্যক্তির সংখ্যা বেড়ে ২১৫ জনে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যে ১৫৩ জন হাসপাতালে ভর্তি। চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। একজন মুসল্লির ঘাড়ে রাবার বুলেটের আঘাত লেগেছে। ঘটনার সময় মসজিদের ভেতর আটকা পড়া আবদুল্লাহ ইদ্রিস নামের এক মুসল্লি বলেন, মসজিদ প্রাঙ্গণ রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। কাঁদানে গ্যাসের কারণে তাঁরা শ্বাস নিতে পারছিলেন না। অনেকে কাশছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *