দিনাজপুরে শিশু হত্যার দায়ে পাঁচজনকে ফাঁসির রায়

 

২০১৫ সালে ঘোড়াঘাট উপজেলায় অপহরণের পরে শিশু হত্যার দায়ে দিনাজপুরের একটি আদালত আজ পাঁচ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে।

দিনাজপুরের মহিলা ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক শরীফ উদ্দিন আহম্মেদ মামলার সাক্ষী ও রেকর্ড পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে একটি ভগ্নদলীয় আদালতে এই রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- ইয়াহিয়া হোসেনের ছেলে জিল্লুর রহমান (২০), তার (জিল্লুর ভাই) জুয়েল ইসলাম (২৭), মামুনুর রশীদ মামুন (২২), কমলুদ্দিনের ছেলে, হুমায়ান কবির সাগর ওরফে বুলেট (২৫), পুত্র মাহবুবুর রহমান এবং ফিরোজ কবির (২০)। দণ্ডপ্রাপ্ত সবাই হলেন ঘোড়াঘাট উপজেলার কাদিরনগর গ্রামের বাসিন্দা।

তাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় আদালত আরও ছয় জনকে বেকসুর খালাস দিয়েছে, আমাদের দিনাজপুর সংবাদদাতা জানিয়েছেন।

প্রসিকিউশন অনুসারে, আসামি ১১ নভেম্বর, ২০১৫ সালে চার বছরের ছেলে পারশা সাহা পরশকে কাদিরনগর গ্রাম থেকে অপহরণ করে যখন ছেলে তার বাড়ির কাছে খেলছিল, এবং মুক্তিপণ হিসাবে ভিকটিমের বাবার কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা দাবি করে।

পরিবারের সদস্যরা মুক্তিপণ দিতে ব্যর্থ হওয়ায় একই উপজেলার কাজিপাড়ায় চোখ বেঁধে অপহরণকারীরা ছেলেটিকে হত্যা করে।

ভুক্তভোগীর বাবা কেশব শাহা একই দিন ঘোড়াঘাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেছিলেন।অভিযুক্তের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির পর পুলিশ ১২ নভেম্বর ঘটনাস্থল থেকে পরশের লাশ উদ্ধার করে।

Are you happy ? Please spread the news